ইজি খবর https://www.easykhobor.com/2022/08/Daraz-Bkash-Offer-2022.html

দারাজ ১১.১১ ক্যাম্পেইন ২০২২।দারাজ বিকাশ ক্যাশব্যাক অফার 2022-Easykhobor


বর্তমানে আপনি কি দারাজ থেকে কেনাকাটা কথা ভাবছেন। আপনি কি দারাজ থেকে কেনাকাটা বিকাশ পেমেন্ট ক্যাশব্যাক অফার জানতে চান? আপনি তাহলে সঠিক জায়গায় এসেছেন এই নিবন্ধনে আমরা দারাজ বিকাশ ক্যাশব্যাক অফার সম্পর্কে আলোচনা করতে যাচ্ছি দারাজ ১১.১১ ক্যাম্পেইন ২০২২ জানুন। দারাজ কেনাকাটায় বিকাশ পেমেন্টে আপনি একটি আকর্ষণীয় ক্যাশব্যাক অফার পাচ্ছেন।

সূচিপত্রঃ দারাজ বিকাশ

সেক্ষেত্রে আপনাকে কিছু শর্তবলী পালন করতে হবে নিম্নে আপনি দারাজ বিকাশ ক্যাশব্যাক অফার সম্পর্কে আলোচনা করতে চাইছে। আপনি যদি দারাজ বিকাশ ক্যাশব্যাক অফার 2022 সম্পর্কে সম্পূর্ণ তথ্য জানতে চান তাহলে আপনি এই আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন।আপনি দারাজ বিকাশ ক্যাশব্যাক অফার সম্পর্কে পূর্ণাঙ্গ তথ্য এবং অফার এর ধারণা দিতে চেষ্টা করব।

দারাজ বিকাশ অফার ২০২২।

বিকাশ বাংলাদেশ নাম্বার ওয়ান মোবাইল ব্যাংকিং প্রতিষ্ঠান। এটা বর্তমানে বাংলাদেশে যে কোন নাগরিককে খুঁজে পাওয়া যায়  য়ে তাদের মোবাইল বিকাশ নেই। ডিজিটাল বাংলাদেশ বর্তমানে সর্বক্ষেত্রে অনলাইনে লেনদেন একটি জনপ্রিয় মাধ্যম হয়ে দাঁড়িয়েছে সে ক্ষেত্রে বিকাশ মানুষের বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা দিয়ে থাকে। আবারও দারাজ ১১.১১ ক্যাম্পেইন এ বিকাশ ক্যাশব্যাক অফার চালু করেছে।

যেমন বিদ্যুৎ বিল, পানির বিল, ক্রেডিট কার্ডের বিল,সহ অনলাইনের অফলাইনের সব কেনাকাটার বিকাশ ব্যবহার করতে পারবেন আপনারা। বিকাশ জনপ্রিয়তা ধরে রাখার জন্য দারাজ বিকাশ পেমেন্ট এর নির্দিষ্ট পরিমাণে ক্যাশব্যাক অফার দিচ্ছে। দারাজ বিকাশ ক্যাশব্যাক অফার এর জন্য আপনাকে অবশ্যই কিছু প্রয়োজনীয় নিয়ম নীতি মেনে তা পেতে পারেন।

দারাজ বিকাশ পেমেন্টে ২০% ক্যাশব্যাক।

বাংলাদেশের দারাজ নাম্বার ওয়ান অনলাইন কেনাকাটার ওয়েবসাইট। এই তারা যে জনপ্রিয়তা দিন দিন আরো বৃদ্ধি পাচ্ছে দারাজ অনলাইনে শপিং অ্যাপ্লিকেশন এর মাধ্যমে যেটি আপনি খুব সহজে মোবাইলে ডাউনলোড করে অনলাইনে কেনাকাটা করতে পারেন। অনলাইনে দারাজ ১১.১১ সেই সকল কেনাকাটা বিল পরিশোধ করার জন্য আপনাকে দারাজ ক্রয় পণ্যটি আপনার ঘরের দরজায় পৌঁছে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেয়।

দারাজের ইতিহাস বা দারাজের প্রতিষ্ঠিতা কে?

দারাজের যাত্রাটা শুরু হয় ২০১২ সালে। সেই সময় রকেট ইন্টারনেটের একজন এম্পলয় যার নাম মুবীন ময়ুর প্রধান প্রতিষ্ঠাতা ও সহকারী-প্রতিষ্টাতা ফরিস শাহয়ের হাত ধরে দারাজ প্রতিষ্টিত হয়। এই ২ জন মিলে ফ্যাশন জাতীয় প্রোডাক্ট খুচরা বিক্রি করার লক্ষ্যে দারাজ প্রতিষ্টা করেন। সেই সময় মুনীব রকেট ইন্টারনেটে কাজ করতেন এবং দারাজের প্রাথমিক অর্থায়ন এবং কাজ রকেট ইন্টারনেট করছিল। এবং ২০১২ সাল নাগাদ প্রথম তারা পাকিস্তানেই যাত্রা শুরু করে। 

রকেট ইন্টারনেট একটি ইউরোপীয় প্রতিষ্ঠান ছিলো। এবং ইউরোপ ও আমেরিকার মত দেশে ততদিনে এ্যামাজন, আলিবাবা, আলি-এক্সপ্রেসের মত বেশ কিছু ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান গ্রো হতে থাকে তাই ইউরোপীয়রা দক্ষিন এশিয়ার পাকিস্তানকে টার্গেট করে দারাজ ২০১২ সালে প্রথমবারের মত পাকিস্তানে লঞ্চ করে এবং পর্যায় ক্রমে Bangladesh, Nepal, Srilanka, Myanmar এর মত দেশগুলোতেও তাদের কার্যক্রম শুরু করে দারাজ ১১.১১ ক্যাম্পেইন ২০২২ প্রতি বছর দিয়ে থাকে বিশেষ দারাজ বিকাশ ক্যাশব্যাক অফার।

দারাজ এর বর্তমান মালিক কে?

দারাজ কোম্পানিটি ২০১২ সালে পাকিস্তানে প্রতিষ্ঠিত হয় বর্তমানে এটি পরিবর্তিত ২০১৫ সালে দারাজ বাংলাদেশ নামে বাংলাদেশে ব্যবসা শুরু করে। ২০১৮ সালে দারাজ কোম্পানিটি কে কে আবার চীনের বিখ্যাত হোম ডেলিভারি কোম্পানি আলিবাবা কিনে নেয় মূলত আলিবাবা দারাজ কে কিনে নেয়ার পর এর জনপ্রিয়তা বাংলাদেশে বহুগুণ বৃদ্ধি পায়।

২০১৮ সালের পর থেকে দারাজ বাংলাদেশ ব্যাপক জনপ্রিয়তা এবং সুনামের সাথে ব্যবসা করে আসছে দারাজ। বর্তমানে বাংলাদেশে ছাড়াও শ্রীলংকা পাকিস্তান নেপাল ভুটান ও মায়ানমারে কোম্পানিটির নাম্বার ওয়ান শপিং ওয়েবসাইট হিসেবে তুলে ধরেছে আলিবাবা প্রতিষ্ঠিত দারাজ ।

দারাজ১১.১১বিকাশ ক্যাশব্যাক অফার ইন্সট্যান্ট।

  1. দারাজ ওয়েবসাইটে দারাজ ডটকম থেকে যে কোন কেনাকাটা পেমেন্ট বিকাশ করলে ২০% ইন্সট্যান্ট ক্যাশব্যাক।
  2. অফার চলাকালীন লিমিট ২০০ টাকা পর্যন্ত দিয়ে থাকে।
  3. পেমেন্ট চাইলে অ্যাপ থেকে অথবা অনলাইনে পেমেন্ট বিকাশ করতে হবে।

বাংলাদেশের ব্যাপক সংখ্যক গ্রাহক প্রতিদিন তারা যে দারাজ ১১.১১ ক্যাম্পেইন কেনাকাটা করে থাকে। তাই দারাজ অধিকাংশ পেমেন্ট দিতে হয় অনলাইন প্লাটফর্মে।সে ক্ষেত্রে বাংলাদেশে মানুষের জনপ্রিয় মোবাইল ব্যাংকিং প্রতিষ্ঠান বিকাশ ব্যবহার করে থাকেন। তাই দারাজ এবং বিকাশ যৌথভাবে সে সকল গ্রাহকে অনলাইনে পেমেন্ট ক্যাশব্যাক অফার সহ বিভিন্ন অফার দিয়ে থাকে। আমরা আগে বলেছি আমার নিবন্ধনটি হতে যাচ্ছে। দারাজ বিকাশ পেমেন্ট ক্যাশব্যাক অফার সম্পর্কে তাই দারাজ ১১.১১ ক্যাম্পেইন বিকাশ পেমেন্ট ক্যাশ ব্যাক অফার সম্পর্কে আমরা বিস্তারিত আলোচনা করেছি। 

দারাজ ১১.১১ ক্যাম্পেইন ২০২২-বিকাশ কেনাকাটার পেমেন্ট

দারাজ এবং বিকাশ কেনাকাটার পেমেন্ট বিকাশ মাধ্যমে করলে আপনাকে নিশ্চিত ২০ পার্সেন্ট ক্যাশব্যাক প্রদান করা হবে। দারাজ ১১.১১ ক্যাম্পেইন ২০২২ উপলক্ষে কেনাকাটা বিকাশ পেমেন্ট করলে ২০% পার্সেন্ট ডিসকাউন্ট দিয়ে থাকে। সে ক্ষেত্রে গ্রাহকরা বিকাশ অ্যাপ দিয়ে ইন্সটল  করে *২৪৭# ডায়াল করে পেমেন্ট বিকাশ করে অফার নিতে পারবেন। বিকাশ অ্যাপ দিয়েও পেমেন্ট এর ক্ষেত্রে আপনাকে বিকাশ অ্যাপ এ গিয়ে বিল পে অপশনে গিয়ে দারাজ যে মেসেজ নাম্বারে বিল পে করতে হবে এবং *২৪৭# করে বিকাশ পেমেন্ট করে অফার নিতে পারবেন।আপনাকে বিল পে অপশনে গিয়ে দারাজ কর্তৃক প্রদত্ত মার্চেন্ট একাউন্ট বিল-পে করতে হবে।

দারাজ বিকাশ ক্যাশব্যাক অফার এর কিছু শর্তাবলী।

  • দারাজ ১১.১১ champion অংশগ্রহণকারী মার্চেন্ট একাউন্টে এপ্প থেকে কিংবা অনলাইনে পেমেন্ট বিকাশ করলে ইনস্ট্যান্ট ক্যাশব্যাক পাওয়া যাবে।
  • বিকাশ গ্রাহকের একাউন্টে ইনস্ট্যান্ট ক্যাশব্যাক পৌঁছে যাবে।
  • বিকাশ গ্রাহকের সক্রিয় একাউন্ট থেকে পর্যাপ্ত ব্যালেন্স থাকার সাপেক্ষে পেমেন্ট বিকাশ করলে ইনস্ট্যান্ট ক্যাশব্যাক পাওয়া যাবে।
  • দারাজ বিকাশ ক্যাশব্যাক পেতে হলে গ্রাহকের অ্যাকাউন্ট স্ট্যাটাস ইনকামিং লেনদেন অবশ্যই শক্ত রাখতে হবে।
  • বিকাশ একাউন্ট থেকে সকল সফল লেনদেনের মাধ্যমে ক্যাশব্যাক পাওয়া যাবে।
  • বিকাশ এবং দারাজ অংশগ্রহণকারী মার্চেন্ট কোন রকমে পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই যে কোন উপায়ে ক্যাম্পের নিয়ম ও শর্ত বলে পরিবর্তন ও সংশোধন বা যেকোনো সময় সম্পূর্ণ ক্যাম্পেন বাতিল করার অধিকার সংরক্ষণ করে।
  • কোন নির্দিষ্ট লেনদেন অথবা গ্রাহকের লেনদেন কার্যক্রম যদি কোন যুক্তিসঙ্গত সংশয় তৈরি করে সে ক্ষেত্রে গ্রাহক করতে ক্যাশ বা সুবিধা অপব্যবহার হয়েছে সে ক্ষেত্রে বিকাশ এবং অংশগ্রহণকারী মার্চেন্ট গ্রাহক ক্যাশব্যাক পেয়ে আউট বাতিল অধিকার সংরক্ষণ করে ।
  • দারাজ যে কোন নির্দিষ্ট লেনদেন বা গ্রাহকের লেনদেন কার্যক্রম যদি এরূপ কোন যুক্তিসঙ্গত সংশয় তৈরি হয়।
  • বিকাশ যদি মার্চেন্ট কোন পণ্য প্রাপ্যতা ও ডেলিভারি নিষেধ করতেন না পারে সে ক্ষেত্রে বিকাশে নিবেনা বিকাশ কেবল গ্রাহকের কাছ থেকে পেমেন্ট সেবা গ্রহণ করবে।
  • মার্চেন্ট গ্রাহকে যে কোন পণ্য সঠিকভাবে ডেলিভারি করতে না পারার কারণে যদি মূল্য ফেরত দেয় এবং তাহলে বিকাশ ও নির্দিষ্ট লেনদেনের জন্য গ্রাহকের ক্যাশব্যাক লিমিট পূর্ণ বহাল করতে বাধ্য নয়। সে ক্ষেত্রে গ্রাহক ক্যাশব্যাক অফারটি গ্রহণ করেছে বলে ধরে নেয়া হবে।
  • যদি কোন বিকাশ গ্রাহক মার্চেন্ট অ্যাপ ওয়েবসাইটে ভুল পেমেন্ট করে ফেলেন সে ক্ষেত্রে গ্রাহকে ওই মার্চেন্টের বা দারাজ এর সাথে যোগাযোগ করা অনুরোধ করা হচ্ছে।

সর্বশেষ কথাঃ দারাজ বিকাশ ক্যাশব্যাক অফার ২০২২।

দারাজ বিকাশ ক্যাশব্যাক অফার এর জন্য বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান দুটি কোম্পানির বিকাশ এবং দারাজ তাদের নিজ নিজ সত্য প্রকাশ করে থাকে। দারাজ তাদের পণ্য বিক্রয় করার জন্য বিকাশের সাথে কিছু ক্যাশব্যাক অফার গ্রহণ করে থাকে, যা বিকাশের কিছু অফার। দারাজ তাদের পণ্য ডেলিভারির দিয়ে থাকে এবং তাদের কর্মের মাধ্যমে দারাজ বিকাশ পেমেন্ট করলেও তাদের ডেলিভারির কোন সুযোগ সুবিধা থাকে না। সেক্ষেত্রে দারাজ বিকাশ ক্যাশব্যাক অফার ২০২২ এর বিকাশ পেমেন্ট ক্যাশব্যাক অফার তা দারাজ ১১.১১ ক্যাম্পেইন ২০২২ এই সময় দারাজ অফার দিয়ে থাকে বেশি।

পরিচিতদেরকে জানাতে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?