How to work Google Search Console ? কিভাবে গুগল Webmaster টুল কাজ করে ?

গুগল Webmaster টুল বা  Search Console ওয়েবসাইট মালিকদের জন্য গুগলের পক্ষ থেকে সেরা উপহার। এই টুল ব্যবহার করে বিভিন্ন কাজ করা যায়। ওয়েবসাইট গুগলে সাবমিট সহ ওয়েবসাইট পারফরম্যান্স চেক করার জন্য এই টুল এর জুড়ি নাই।

আপনি কি Google Search কনসোল সেটাপ করতে পারেন? খুব দ্রুত পোস্ট Google Search ইন্ডেক্স করাতে চাচ্ছেন? তাহলে এই আর্টিকেলটি আপনার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ কারণ, এই লিখাটি পড়ার মাধ্যমে আপনি জানবেন কিভাবে আপনার ওয়েবসাইট Google Search রেজাল্টে প্রদর্শন করাবেন। কিভাবে একটি ওয়েবসাইট Google Search কনসোলে সাবমিট করবেন সে সম্পর্কে বিস্তারিত বর্ণনা করা হবে এখানে।

গুগল সার্চ কনসোল কি?


Google Search Console এমন একটি টুল যা ব্যবহার করে ওয়েব সাইট মালিকগণ তাদের ওয়েব সাইটের সাইটম্যাপ গুগোল ডেটাবেজে সাবমিট বা সংরক্ষণ করে। Google Search কনসোল এর বেশ কিছু কাজ রয়েছে। নিচে গুগল Webmaster টুল ব্যবহার করে কি কি করতে পারবেন তার একটি সংক্ষিপ্ত তালিকা উপস্থাপন করা হলো।

  1. Sitemap upload আপলোড
  2. Website performance পর্যবেক্ষণ
  3. Keywords আইডিয়া
  4. Website ভিজিটরের লোকেশন সংক্রান্ত Information
  5. বিভিন্ন Website link এ information দেওয়া 

আরো পড়তে ঃ How to apply for National University Admission 2022. অর্নাস ১ম বর্ষ ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ২০২২।

এছাড়াও গুগল Webmaster টুল এর আরো বেশ কিছু কাজ রয়েছে। এখানে আমরা শুধুমাত্র প্রধান গুলো তুলে ধরেছি। এবার আমরা প্রতিটি বিষয় সম্পর্কে বিস্তারিত ধারণা দেওয়ার চেষ্টা করব পরর্বতিতে সব জানতে পারবেন আপনারা।

সাইটম্যাপ (Sitemap) আপলোড upload 


এই টুল ব্যবহার করে আপনি আপনার ওয়েব সাইটে যতগুলো link রয়েছে তা একবারে গুগলের কাছে সাবমিট করতে পারবেন। সাইটম্যাপ বলতে আমরা একটি ওয়েবসাইটের প্রতিটা link এর তথ্যকে বুঝি। গুগল সার্চ রেজাল্টে যে ওয়েবসাইট প্রদর্শনের পূর্বশর্ত হলো ওয়েব সাইটের সাইটম্যাপ Google Search কনসোলে সাবমিট করা।

কিভাবে বাংলা কিওয়ার্ড Keywords  রিসার্চ করবেন?

সাইট ম্যাপ আপলোডের পূর্বে অবশ্যই আপনার ওয়েবসাইটটিতে গুগল Search Console অ্যাড করতে হবে। আপনি 2 টি উপায়ে ওয়েবসাইট Search Console যুক্ত করতে পারবেন।

আমরা ইউআরএল প্রিফিক্স (URL Prefix) হতে ওয়েবসাইট Search Console এ্যাড করা শিখাবো। এজন্য নিচের ধাপগুলো অনুসরণ করুন।প্রথমে আপনার ওয়েব সাইটের link টি প্রবেশ করাতে হবে। এরপর ভেরিফিকেশন এ Click করতে হবে।

আপনাকে তিনটি উপায়ে ভেরিফিকেশন এর অপশন দেওয়া হবে। সেখান থেকে এইচটিএমএল ট্যাগ (HTML Tag) বেছে নেন।

পরবর্তীতে সেখানে প্রদত্ত HTML কোডটি কপি করে আপনার ওয়েবসাইটের থিমের হেডারে (Theme Header) যুক্ত করতে হবে।এরপর ভেরিফাই বাটনে ক্লিক করলে ভেরিফিকেশন কমপ্লিট হয়ে যাবে।

ওয়েবসাইটের পারফরম্যান্স পর্যবেক্ষণ



Search Console আপনার সাইট এর পারফর্মেন্স পর্যবেক্ষণ করে।কোন কিওয়ার্ডে আপনার ওয়েবসাইট ভিজিটর পাচ্ছেন তার বিস্তারিত তথ্য পাবেন এখানে।

এছাড়াও আপনার ওয়েবসাইট কতবার Google Search Console রেজাল্টে প্রদর্শিত হয়েছে এবং কতবার আপনার ওয়েবসাইটের link এ ক্লিক করা হয়েছে তার বিস্তারিত তথ্য এখানে পাবেন। এবং আপনার ওয়েবসাইটে কোন কোন দেশ হতে ভিজিটর আসে এবং সে সব দেশে আপনার ওয়েবসাইটের Ranking পজিশন কত তা জানতে পারবেন এখান থেকে।

(Keywords Idea) কিওয়ার্ড আইডিয়া 

নতুন কিওয়ার্ড আইডিয়া পাওয়ার জন্য এই টুলস এর কোন বিকল্প নাই। আমরা যখন ওয়েবসাইটে কোন পোস্ট করে তখন অনেক কিওয়ার্ডে তা Ranking করে। এমন অনেক কিওয়ার্ড রয়েছে যার অনেক সার্চ ভোলিয়াম কিন্ত আমরা ধরতে পারিনা।

গুগল Search Console হতে আমরা কোন কিওয়ার্ডের সার্চ ভলিয়াম সম্পর্কে তথ্য জানতে পারি। এবং সেখান থেকেই নতুন কিওয়ার্ড আইডিয়া চলে আসে। এছাড়াও আপনি এখান থেকে কিওয়ার্ড আইডিয়া নিয়ে তা আপনার পোস্টে যুক্ত করার মাধ্যমে অনেকগুণ ভিজিটর বৃদ্ধি করতে পারেন।

কিভাবে গুগল Webmaster টুল কাজ করে?

ওয়েব সাইটে বিভিন্ন দেশ থেকে ভিজিটর আসে। একেক দেশে আপনার ওয়েবসাইট একেক position অবস্থান করে। সেখান থেকে আপনি জেনে নিতে পারেন আপনার ওয়েবসাইট কোন দেশে কোন position রয়েছে।

এবং এসব তথ্য বিশ্লেষণ করে আপনার আর্টিকেল আরও উন্নত করার মাধ্যমে খুব সহজেই ভালো position অবস্থান করাতে পারেন। এগুলো আপনার ওয়েবসাইটে রেভেনিউ জেনারেট করতে খুব বেশি সাহায্য করবে।

বিভিন্ন ওয়েবসাইটের লিংকিং এর তথ্য

আপনার ওয়েব সাইটের লেখা সুন্দর হলে মানুষ সেগুলো বিভিন্ন ওয়েবসাইটে শেয়ার করবে। এ ধরনের শেয়ার ওয়েবসাইটের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ প্লাস পয়েন্ট। কারণ যার ওয়েবসাইটের লেখা যত বেশি ওয়েবসাইটে শেয়ার করা হবে তার ওয়েবসাইট ততবেশি গুণসম্পন্ন বলে ধরে নেওয়া হয়।

এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি রেংকিং ফ্যাক্টর। এ ধরনের link কে ব্যাকলিংক(Backlink) বলা হয়। আপনি ম্যানুয়ালি(Manually) ব্যাকলিংক করতে পারবেন। এবং কতগুলো ওয়েব সাইটে আপনার link রয়েছে তার বিস্তারিত তথ্য এখান হতে পাওয়া যাবে।

সর্বশেষ কথা

আমার ক্ষুদ্র জ্ঞানে Google Search Console এই আর্টিকেলটি আপনাদের কেমন লেগেছে তা কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে ভুলবেন না। ইন্টারনেট হতে ইনকাম করার বিভিন্ন উপায় ও কৌশল জানতে আমাদের ওয়েবসাইট নিয়মিত ভিজিট করতে পারেন আপনারা। আমাদের ওয়েবসাইট থেকে উপকৃত হলে অবশ্যই বন্ধদের মাঝে শেয়ার করতে ভুলবেন না। মনোযোগ সহকারে আমাদের লেখা পড়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

আরো পড়তে ঃসার্চ ইঞ্জিন কি Wabsite সার্চ ইঞ্জিন দিয়ে কিভাবে গুগোলে আয় করবেন How to Search Engine

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0মন্তব্যসমূহ

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন (0)

#buttons=(Ok, Go it!) #days=(20)

Our website uses cookies to enhance your experience. Check Now
Ok, Go it!