স্যাটেলাইট Satellite কি? স্যাটেলাইট অর্থ কি? Satellite এর কাজ সমূহ।

স্যাটেলাইটের উপগ্রহের মাধ্যমে বিভিন্ন দেশের বিভিন্ন জায়গায় খবর পেয়ে যায় । স্যাটেলাইটকে আমরা রকেট ডিভাইস প্যাটেল এর মধ্যে কক্ষপথে পাঠানো হয় পৃথিবীর অভিকর্ষ পার হতে রকেট ঘন্টায় ২৫০০০ থেকে হাজার হাজার অফ ব্যবহৃত কৃত্রিম উপগ্রহ বা তাদের অংশবিশেষ মহাকাশ ধ্বংসাবশেষ হিসেবে পৃথিবীকে প্রদক্ষিণ হচ্ছে।

স্যাটেলাইট সাধারণত সলার পাওয়ার সৌর বিদ্যুতে চলে। স্যাটেলাইট এর যাত্রা শুরু হয়েছিল হাজার ১৯৫৭ সালে ৪ অক্টোবর থেকে স্যাটেলাইট পৃথিবীতে বিভিন্ন পথে প্রদর্শিত হচ্ছে স্যাটেলাইটের মাধ্যমে ডিজিটাল যুগে প্রবেশ করেছে বিভিন্ন দেশে পুরো বিশ্ব।

স্যাটেলাইট Satellite কি ?


স্যাটেলাইট বলতে আমরা সাধারণত বুঝে থাকি পৃথিবীর চারদিকে প্রদক্ষিণ করে এমন স্থানে স্থাপিত বিশেষ ধরনের তারবিহীন রিসিভার স্যাটেলাইট বলে। স্যাটেলাইট হল কৃত্রিম উপগ্রহ মহাকাশে উপেক্ষিত প্রক্রিয়ায় উদ্ভাবিত উপগ্রহ মানব সৃষ্টির উপগ্রহ কে বলা হয় কৃত্রিম উপগ্রহ স্যাটেলাইট।স্যাটেলাইট সাধারণত সলার পাওয়ার সৌর বিদ্যুতে চলে। সাধারণত মহাকাশে রকেট এর মাধ্যমে উৎক্ষেপণ করা হয় স্যাটে লাইট গুলো কে। বাংলাদেশের প্রথম স্যাটেলাইট বঙ্গবন্ধ-১ স্যাটেলাইট মহাকাশ।

স্যাটেলাইট অর্থ কি?

স্যাটেলাইট অর্থ হল কৃত্রিম উপগ্রহ। স্যাটেলাইট কৃত্রিম উপগ্রহ মহাকাশে যাত্রা একটি পুরোনো নয় একেবারে নতুন নয় আপনার জেনে অবাক হবেন যে মহাকাশযাত্রা প্রথম পদক্ষেপ এর সূচনা হয়েছিল ১৯৫৭ সালের ৪ অক্টোবর স্যাটেলাইটের এই যাত্রার সূচনা করেন তৎকালীন সোভিয়েত ইউনিয়ন ইউনিয়ন স্পুটনিক-১ নামো কৃত্রিম উপগ্রহ মহাকাশে উৎক্ষেপণ করে। স্পুটনিক শব্দের অর্থ হলো ভ্রমণ সঙ্গী। পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে এ পর্যন্ত প্রায় সহস্রাধিক কৃত্রিম উপগ্রহ মহাকাশে পাঠিয়েছে। কয়েক শত কৃত্রিম উপগ্রহ বর্তমানে ব্যবহার করা হচ্ছে এবং হাজার হাজার অফ ব্যবহৃত কৃত্রিম উপগ্রহ বা তাদের অংশবিশেষ মহাকাশ ধ্বংসাবশেষ হিসেবে পৃথিবীকে প্রদক্ষিণ হচ্ছে।

Satellite এর কাজ সমূহ।

  • পৃথিবীতে স্যাটেলাইট এর শরীর ধাতু শংকরের ফ্রেম দিয়ে তৈরি একে বলে বাস।
  • প্রতিটা স্যাটেলাইট এর ফাঁকে লার সেল এবং শক্তি জমা রাখার জন্য ব্যাটারি।
  • স্যাটেলাইট অন বোর্ড কম্পিউটার থাকে যার যা নিয়ন্ত্রণ এবং শেষ বিভিন্ন সিস্টেমকে মনিটর করে।
  • স্যাটেলাইট একটি মৌলিক বৈশিষ্ট্য হলো এর রেডিও সিস্টেম এন্টেনা হিসেবে কাজ করে।
  • স্যাটেলাইট পৃথিবীর পৃষ্ঠে নিরীক্ষণ করতেও পৃথিবীপৃষ্ঠে বিভিন্ন অংশের ছবি তুলতে ব্যবহার করা হয়।
  • স্যাটেলাইট প্রশাসনিক মিলিটারি শুধুমাত্র সামরিক উদ্দেশ্যে ব্যবহার করা হয়।
  • স্যাটেলাইটের মূল কাজ হলো নিউক্লিয়ার, মনিটরিং, রাডার ইমেজিং, ফটোগ্রাফি শতরুর গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করা।

সর্বশেষ কথা

স্যাটেলাইটের আমরা বিভিন্ন গণমাধ্যম সাংবাদিক বা মোবাইল টাওয়ার এর মাধ্যমে বিভিন্ন সেবা পেয়ে থাকি। স্যাটেলাইট এর যাত্রা শুরু হয়েছিল হাজার ১৯৫৭ সালে ৪ অক্টোবর থেকে স্যাটেলাইট পৃথিবীতে বিভিন্ন পথে প্রদর্শিত হচ্ছে স্যাটেলাইটের মাধ্যমে ডিজিটাল যুগে প্রবেশ করেছে বিভিন্ন দেশে পুরো বিশ্ব। স্যাটেলাইট ব্যবহার করে আমরা সকল সুযোগ সুবিধা পেয়ে থাকে তাই আজকে স্যাটেলাইট কি স্যাটেলাইটের অর্থ কি এবং স্যাটেলাইট এর কাজ সমূহ নিয়ে আপনাদের কাছে তুলে ধরছি আপনাদের সুবিধার্থে ফেসবুক আইডিতে শেয়ার এবং সুযোগ করে দিন

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0মন্তব্যসমূহ

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন (0)

#buttons=(Ok, Go it!) #days=(20)

Our website uses cookies to enhance your experience. Check Now
Ok, Go it!