ইজি খবর https://www.easykhobor.com/2022/08/Digital-Library-2022.html

ডিজিটাল লাইব্রেরী ২০২২।ডিজিটাল লাইব্রেরী কয় প্রকার কি কি


বর্তমান যুগে হল ডিজিটাল যুগ। এই সময় সবকিছু ধীরে ধীরে ডিজিটাল হয়ে যাচ্ছে। এজন্য ডিজিটাল লাইব্রেরী সূচনা শুরু হয়ে গেছে।ডিজিটাল লাইব্রেরী সম্পর্কে আজকে আপনাদের জানাবো যেখান থেকে আপনি ডিজিটাল লাইব্রেরীকে ডিজিটাল লাইব্রেরির সুবিধা এবং ডিজিটাল লাইফে কেন প্রয়োজন সে সম্পর্কে আপনি জানতে পারবেন।

সূচিপত্রঃ ডিজিটাল লাইব্রেরী ২০২২

চলুন আজকে আপনাদের ডিজিটাল লাইব্রেরী সম্পর্কে কিছু তথ্য আপনাদের সামনে তুলে ধরব।

আরো পড়ুনঃ ফেসবুক পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করার উপায়-

ডিজিটাল লাইব্রেরী কি

ডিজিটাল লাইব্রেরী হলো এক ধরনের পুস্তকালয়। যেখানে সকল ডাটা ডিজিটাল রূপে স্টোর করে রাখা হয়ে থাকে এই সমস্ত ডাটা খুলে ভীষণ কম্পিউটারের সাহায্যে এক্সেস করা যায়।আপনি ডিজিটাল প্রেমেন্ট, ডিজিটাল সিগনেচার, ডিজিটাল লকার, এর মত অ্যাপ্লিকেশন গুলি ডিজিটাল লাইব্রেরীর একটি উদাহরণ।

আজ এবং আগামী দিনের বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশনের মধ্যে অনেক ধরনের বই এবং কনটেন্ট পাওয়া যায় যেগুলো পিডিএফ ফরমেট এবং সফটওয়্যার কপিতে স্টোর করে রাখে।এ সমস্ত জিনিসগুলো যে জায়গায় স্টোর করে রাখা হয় সেটি হল ডিজিটাল লাইব্রেরী

ডিজিটাল লাইব্রেরী কাকে বলে।

ডিজিটাল লাইব্রেরী হলো এক ধরনের ডিজিটাল সম্পত্তির ভান্ডার। যা হার্ট কপির পরিবর্তে সফট কপি এবং বিভিন্ন ধরনের ডিজিটাল ফাইল যেমনঃটেক্স, অডিও, ভিডিও স্টোর করে রাখা হয়। এ ধরনের লাইব্রেরীকে রোজ আপডেট করা হয়, এবং বিভিন্ন ইউজারের দ্বারা এক্সেস করা হয় ডিজিটাল লাইব্রেরী।

ডিজিটাল লাইব্রেরী কয় প্রকার কি কি?ডিজিটাল লাইব্রেরীর অপর নাম কি।

ডিজিটাল লাইব্রেরী আমরা সাধারণত বিভিন্নভাবে ব্যবহার করার ফলে যেগুলোকে কাজের সুবিধার্থে বিভিন্ন নামে দেয়া হয় এবং সেগুলোকে ডিজিটাল লাইব্রেরী তিন প্রকার ভাগ করা হয়েছে যথা।

১. ইলেকট্রনিক্স লাইব্রেরী Electronics Library

২. ভার্চুয়াল লাইব্রেরী Virtual Library

৩.হাইব্রিড লাইব্রেরী Hybrid library.

ডিজিটাল লাইব্রেরী সুবিধা

  • এইটা লাইব্রেরী থেকে ফাইন এক্সেস করার জন্য কোথাও যাওয়ার প্রয়োজন হয় না বাড়িতে বসে সবকিছু এক্সেস করা যায়।
  • যেকোনো সময় যেকোনো দেন যে কোন টাইমে এক্সেস করতে পারেন।
  • এই জিনিসকে অনেক ব্যক্তি একত্রে ব্যবহার করতে পারে
  • ডিজিটাল লাইব্রেরীর জিনিস পৃথিবীর যেকোন প্রান্ত থেকে যে কোন ব্যক্তি আপলোড ও এক্সেস করে নিতে পারেন।
  • একটি নির্দিষ্ট ফাইলে লিংক এবং সফট কপি অন্যদের থেকে বা সাথে শেয়ার করা যায়।
  • এ ধরনের লাইব্রেরী তৈরি করবার জন্য জমি বা জায়গা প্রয়োজন হয় না।

ডিজিটাল লাইব্রেরী কেন প্রয়োজন।

  • বর্তমানে সময়ে বেশিরভাগ জায়গায় ডিজিটাল লাইব্রেরীর ব্যবহার শুরু হয়েছে। তাই এই বর্তমান সময়ে এটির প্রয়োজনও আছে।
  • ডিজিটাল লাইব্রেরীর মাধ্যমে যে কোন ব্যক্তি খুব সহজে যে কোন জিনিস এক্সেস করতে পারবে। এ সমস্ত সরকারি ডকুমেন্টস খুব সহজে রাখতে পারবে।
  • পৃথিবীর যেকোনো ব্যক্তি সঙ্গে নিজস্ব কোন ডিজিটাল ফাইল শেয়ার করবার জন্য এই লাভের বিশেষ কাজে লাগে বলে জানা গেছে।
  • ডিজিটাল লাইব্রেরি জনসংখ্যা বৃদ্ধির জন্য মানুষ লাইব্রেরী যেতে পছন্দ করে না তাই তারা ডিজিটাল লাইব্রেরী ব্যবহার করে বিভিন্ন ধরনের বই পত্র বাড়িতে বসে পড়তে পারেন।এ সমস্ত সুবিধার কথা মাথায় রেখে প্রত্যেকটি দেশে সরকারকে তাদের নাগরিকের কথা ভেবে ডিজিটাল লাইব্রেরী তৈরি করার প্রয়োজন আছে ।

সর্বশেষ কথাঃ  ডিজিটাল লাইব্রেরী

প্রত্যেকটি মানুষ ব্যস্ততার ওপর তার নিজের ইনফরমেশন থেকে দূরে সরে যাচ্ছে তাই এসব ইনফরমেশন পাওয়ার জন্য ডিজিটাল লাইব্রেরীর প্রয়োজন ডিজিটাল লাইব্রেরী কে এবং ডিজিটাল লাইব্রেরির প্রয়োজন থাকে কেমন তা সম্পর্কে আপনাদের জানাবো।ডিজিটাল লাইব্রেরী সম্পর্কে আপনার কোন প্রশ্ন থাকলে আপনি কমেন্ট করে জানাতে পারেন এবং ভালো লাগলে শেয়ার করতে পারেন।

পরিচিতদেরকে জানাতে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

অর্ডিনারি আইটি কী?