ডিভাইস কি? ডিভাইস কত প্রকার কি কি? easykhobor

বন্ধুরা আপনারা জানেন কি ডিভাইস কি কম্পিউটার বিভিন্ন ডিভাইস নিয়ে গঠিত হয়। যার মাধ্যমে একটি কম্পিউটার সিস্টেম সুষ্ঠুভাবে কাজ করতে পারে তবে ডিভাইস সম্পর্কে এমন কিছু প্রশ্ন উত্তর আছে যেগুলো অনেক ব্যক্তি জানেন না।

ডিভাইস কি? ডিভাইস কত প্রকার কি কি? easykhobor

এর জন্য কম্পিউটার ডিভাইস সম্পর্কে আপনি জেনে থাকবেন ডিভাইস কি ডিভাইস কত প্রকার ও কি কি ডিভাইস কাকে বলে এ সকল প্রশ্ন উত্তর গুলো এই আর্টিকেলের মাধ্যমে পেয়ে যাবেন। কম্পিউটার ডিভাইস এর সকল তথ্য ও উপাত্তর নিচে আলোচনা করা হলো।

আরো পড়ুনঃ   ক্লাউড কম্পিউটিং কি? 

ডিভাইস কি?

কম্পিউটার ডিভাইস হলো এমন একটি ফিজিক্যাল হার্ডওয়ার বা ইকুইপমেন্ট যেটি কম্পিউটারের সিস্টেমের মাধ্যমে আবদ্ধ থেকে কম্পিউটারের সকল সিস্টেমের বিভিন্ন ফাংশন প্রোভাইড করে থাকে। মুল কথা বলতে কম্পিউটার ডিভাইস হলো এমন এক প্রকারের যন্ত্র যার মাধ্যমে কম্পিউটার বিভিন্ন কাজ সম্পন্ন করতে পারে।

আরো পড়ুনঃ   মোবাইল ফোন ভিজে গেলে কি করণীয়!

কম্পিউটার ডিভাইস দুই ধরনের হয়ে থাকে ইনপুট ডিভাইস আউটপুট ডিভাইস। ইনপুট ডিভাইস গুলোর মধ্যে কম্পিউটার কে ইনপুট দেয়া যায় এবং আউটপুট ডিভাইসের মাধ্যমে কম্পিউটার ইউজারকে আউটপুট দিতে থাকে।

আরো পড়তেঃ   ফাইভ-জি কি?

কম্পিউটারে মাউস কিবোর্ড স্পিকার প্রিন্টার ইত্যাদি সবকিছু কম্পিউটারের ডিভাইসের উদাহরণ। এক একটি ডিভাইস কম্পিউটারে একটি সুনির্দিষ্ট কাজ করার জন্য ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

ডিভাইস মানে কি?

ডিভাইস মানে হলো যন্ত্র। কম্পিউটার এর বিভিন্ন যন্ত্রের সাহায্যে কম্পিউটারে বিভিন্ন কাজ করতে পারে তাই একটি কম্পিউটার প্রচলন জন্য বিভিন্ন ডিভাইসকে সংযুক্ত করে তা পুনরায় কম্পিউটার সিস্টেম তৈরি করতে পারে। অর্থাৎ একটি সন্নির্দিষ্ট ডিভাইস হল এক ধরনের মেশিন যেটি নির্দিষ্ট কাজের জন্য কম্পিউটার ডিজাইন করা হয়ে থাকে।

আরো পড়ুনঃ   কম্পিউটার জেনারেশন কি?

ডিভাইস কাকে বলে?

কম্পিউটারের মধ্যে থাকার যে সকল যন্ত্রগুলির মাধ্যমে কম্পিউটার সিস্টেম এর বিভিন্ন ফাংশনগুলি নিয়ে কাজ করে থাকে সে যন্ত্রগুলোকে ডিভাইস বলে। কম্পিউটারের মধ্যে বিভিন্ন কাজ করার জন্য বিভিন্ন ধরনের ডিভাইস ব্যবহার করা হয়।

ডিভাইস কত প্রকার ও কি কি?

কম্পিউটার ডিভাইস সাধারণত চার প্রকার এগুলো হলোঃ

আরো পড়ুনঃ   কিভাবে Gmail এ কাউকে ব্লক  আনব্লক করবেন?

ইনপুট ডিভাইস।

কম্পিউটার ইনপুট দেয়ার জন্য যে সকল ডিভাইস গুলোকে নিয়ে কাজ করা হয় সেগুলো হল ইনপুট ডিভাইস। ইনপুট ডিভাইসের উদাহরণ হল মাউস কিবোর্ড ট্রান্সপার্ড ইত্যাদি

স্টোরেজ ডিভাইস।

কম্পিউটার এর সুনির্দিষ্ট ইনপুট দেওয়ার জন্য যে সকলস্টোর করে রাখে প্রসেসিং করার জন্য এবং ভবিষ্যতের প্রয়োজনে ডাটা স্টোর করে রাখার জন্য স্টোরেজ ডিভাইস কাজ করে।

আরো পড়ুনঃ  এফিলিয়েট মার্কেটিং করে আয় করার উপায়?

Hard drive USB flash drive, Floppy dicks,magnetic tape, DVD হাট ড্রাইভ ইউএসবি ফ্ল্যা শ প্রোপিডিস্ক টাইপ ডিভিডি ইত্যাদি। ডিভাইস গুলো স্টোরেজ ডিভাইসের উদাহরণ সমূহ।

প্রসেসিং ডিভাইস।

কম্পিউটারের প্রতিটি ইনপুট ডিভাইসকে গ্রহণ করে সেটিকে প্রসেসিং করে আউটপুট ডিভাইসের মাধ্যমে ইউজার কে ফলাফল দিয়ে থাকে তাই প্রসেসিং করার জন্য কম্পিউটারের মধ্যে যে সকল ডিভাইস গুলো কাজ করে সেগুলোকে বলা হয় প্রসেসিং ডিভাইস।

CPU motherboard network card sound card video card, এ সকল ডিভাইস গুলো প্রসেসিং ডিভাইসের উদাহরণ।

আউটপুট ডিভাইস।

কম্পিউটার ডিভাইস ব্যবহারকারীরা যে সকল ডিভাইসের মাধ্যমে ইন আউটপুট পেয়ে থাকে সেই সকল ডিভাইসকে আউটপুট ডিভাইস বলা হয় আউটপুট ডিভাইসে উদাহরণ হল প্রিন্টার মনিটর ইত্যাদি।

সর্বশেষ কথাঃ ডিভাইস এর কাজ কি?

কম্পিউটার ডিভাইস এমন একটি ডিভাইস দেওয়া প্রচলিত সকল কাজ একসাথে প্রসেসিং করে থাকে। আশা করি আপনি কম্পিউটার ডিভাইস কি? কম্পিউটার ডিভাইস কত প্রকার কি কি? এবং ডিভাইস কাকে বলে এ সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পেরেছেন আপনার কোন জানা থাকলে কমেন্ট করে তা আমাদের জানান।

আরো পোস্ট দেখুন
Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url