ইন্টারনেট কি? ইন্টারনেট কিভাবে আবিষ্কার হয়?

আসসালামু আলাইকুম আশা করি আপনারা ইন্টারনেট কি? এবং ইন্টারনেট কিভাবে ব্যবহার করতে হয় সে সম্পর্কে জানেন আজকে আপনাদের জানাতে চেষ্টা করব ইন্টারনেট সম্পর্কে। আজকের দিনে ইন্টারনেটে নাম শোনেন নাই এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া খুব কমই আছে। তাই বর্তমান যুগে ইন্টারনেট ছাড়া অনেক কাজ করা কঠিন হয়ে পড়েছে, ইন্টারনেট এই তথ্য আদান-প্রদান থেকে শুরু করে।

ইন্টারনেট কি? ইন্টারনেট কিভাবে আবিষ্কার হয়?

ইন্টারনেট বা অনলাইনে থেকে কোন কিছু কেনাকাটা সকল কিছুই আমরা ইন্টারনেটের মাধ্যমে করে থাকি। আপনি যদি ইন্টারনেট সম্পর্কে বিস্তারিত না জেনে থাকেন, তাহলে আপনি আজকের এই আর্টিকেলটি ইন্টারনেট সম্পর্কে জেনে রাখতে পারবেন, আপনিও খুব সহজেই।

আরো পড়ুনঃ  ভিডিও কপি পেস্ট করে ইউটিউব থেকে আয়-Easy

আপনারা ইন্টারনেট কি? ইন্টারনেট জনক কে, ইন্টারনেট কিভাবে কাজ করে এবং ইন্টারনেটে কি কি কাজ করে থাকে, এসব প্রশ্ন আপনার আসতে পারে তাই আজকের আর্টিকেলটি থেকে এ সমস্ত প্রশ্নের উত্তর খুঁজে নিতে পারবেন আপনি তাহলে চলুন আজকের দেরি না করে ইন্টারনেট সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জেনে নেওয়া যাক।

ইন্টারনেট কি?

ইন্টারনেট হল এক ধরনের জাল। এই মাধ্যমে দইবা একাধিক কম্পিউটারের মাধ্যমে কানেকশন তৈরি করে বিভিন্ন ইনফরমেশন শেয়ার করা। এই দুইয়ের বেশি কম্পিউটারে একত্রে কানেক্ট হওয়াকে ইন্টারনেট বলে। ইন্টারনেট হল এক ধরনের আধুনিক প্রযুক্তি।

কম্পিউটারের মধ্যে থাকা পটোকলের মাধ্যমে সমস্ত কম্পিউটার গুলোকে একত্রে যোগাযোগ তৈরি করার নামে হলো ইন্টারনেট। ইন্টারনেটে প্রতিটি কম্পিউটারে আলাদা আলাদা আইপি অ্যাড্রেস থাকার কারণে ইন্টারনেটে কোনো কম্পিউটারের নির্দিষ্ট লোকেশন বা আইপি অ্যাড্রেস এর মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণ করা হয়।

আরো পড়ুনঃ  ক্লাউড কম্পিউটিং কি?

ইন্টারনেটের মাধ্যমে গ্লোবাল নেটওয়ার্ক প্রবেশ করার পর নির্দিষ্ট কম্পিউটারটি অন্যান্য ডাটা শেয়ার এবং রিসিভ করতে পারে ইন্টারনেট।তাই কোন কম্পিউটারকে ইন্টারনেট কানেক্ট করে পৃথিবীর যেকোন প্রান্ত থেকে তথ্য দেওয়া নেওয়া হয়ে থাকে সেজন্য আজকের দিনে যোগাযোগের জন্য তম প্রধান মাধ্যম হল ইন্টারনেট।

ইন্টারনেটের অর্থ কি?

ইন্টারনেটের বাংলা অর্থ হলো অন্তরজাল।এই জলের মাধ্যমে এর বেশি কম্পিউটার কে একত্রে কানেক্ট করা হয়।ইন্টারনেটের মাধ্যমে লক্ষ লক্ষ কম্পিউটার একসাথে কানেক্ট হওয়ার কারণে এটিকে মায়াজাল ও বলা হয়।

ইন্টারনেট কাকে বলে?

দইবা তো দুইবার ততোধিক এর বেশি কম্পিউটারে কোন নেটওয়ার্ক সংযুক্ত করে একে অপরের সাথে কানেকশন তৈরি করলে তাকে ইন্টারনেট বলে।

আরো পড়ুনঃ  মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকাম করা সম্ভব

অন্যভাবে বলতে দুইয়ের বেশি কম্পিউটার যখন ইন্টারনেট প্রটোকল এর মাধ্যমে কোন নেটওয়ার্কের দ্বারা একত্রে যোগাযোগ তৈরি করে তখন সেই কানেকশন বা নেটওয়ার্ক থেকে ইন্টারনেট বলে ইন্টারনেট হল পৃথিবীর সব থেকে বড় নেটওয়ার্ক।

ইন্টারনেটের জনক কে?

ইন্টারনেটের আবিষ্কার একজন ব্যক্তি নয় ইন্টারনেটের আবিষ্কারের পেছনে একাধিক ব্যক্তির কৃতিত্ব রয়েছে। তবে vint cerf ম্যানচেস্টার এন্ড Bob kahn বপখান ইন্টারনেটের সবথেকে মূল বিষয়টি আবিষ্কার করেন এজন্য এদেরকে ইন্টারনেট জনক বলা হয়।

আরো পড়ুনঃ মোবাইল দিয়ে ডিজিটাল মার্কেটিং কি

ইন্টারনেট আবিষ্কারের মূল জিনিস দুটি হলো transmission control protocol(PCP) internet protocol (IP) প্রটোকল ছাড়া একাধিক কম্পিউটারের যোগাযোগ সম্ভব নয়।

ইন্টারনেট শুরু হয় কত সালে।

১৯৬৯ সালে আমেরিকা যখন চাঁদের পা রাখে তখন থেকেই advanced research project Agency বা ARPA, এই চারটি কম্পিউটার একত্রে কানেকশন করে তথ্য আদান-প্রদানের জন্য ইন্টারনেট ব্যবহার করা হয়।

ইন্টারনেট ব্যবহারে বাংলাদেশের অবস্থান কত?

বিশ্বের ৫৮ টি উন্নয়নশীল ও স্বল্পোন্নত দেশের মধ্যে ইন্টারনেট ব্যবহার সক্ষমতায় বাংলাদেশের অবস্থান এখন ৪৬, যা আগের বছরে ছিলো ৩৩ তম। এক বছরে বাংলাদেশ ১৩টি দেশের পেছনে ফেল এগিয়ে এসেছে।

ইন্টারনেট প্রথম ওয়েবসাইট কোনটি।

ইন্টারনেট বিশ্বের ৬ আগস্ট ১৯৯১ সালে ‘Berbers Lee, প্রথম ওয়েবসাইট তৈরি করেন এবং এটিকে ইন্টারনেট লাইভ করেন। এটি ছিল ইন্টারনেটের সর্বপ্রথম ওয়েবসাইট।

আরো পড়ুনঃ কিভাবে মোবাইল অ্যাপস তৈরি করবেন

http://info.cern.ch/hypertext/www/the project.html

এই ওয়েব সাইটে আজকের দিনে ইন্টারনেটে লাইভ আছে address থেকে আপনি ওয়েবসাইটটি খুলতে পারবেন যেটি দেখতে এরকম,,,,,,,

ইন্টারনেট কিভাবে আবিষ্কার হয়?

ইন্টারনেট দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় সর্বপ্রথম Leonard Kleinrock সেনাদের বার্তা পৌঁছানোর জন্য এ ধরনের টেকনিক্যাল মাথায় নিয়ে আসেন। ১৯৬২ সালে J.C.R Licklider Robert Taylor এক ধরনের Galactic বানানো কথা ভাবেন এর উপর ভিত্তি করে তারা কাজ শুরু করে দেন।

আরো পড়ুনঃ উপায় মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্ট খোলার নিয়ম।

এরপর ১৯৬৫ সালে একজন বিজ্ঞানী MITএকটি কম্পিউটার থেকে অন্য কম্পিউটারে তথ্য আদান প্রদানের জন্য Packet সুইচিং Switching নামক আইডিয়া বের করেন। পরবর্তীকালে এই আইডিয়ার উপর ভিত্তি করেএডভান্স টিচার প্রজেক্ট এজেন্সিARPA কম্পিউটারের মধ্যে যোগ যোগাযোগের জন্য নেটওয়ার্ক কন্ট্রোল প্রটোকলের ব্যবহার করেন।

আরো পড়ুনঃ   কার্ড থেকে নগদে টাকা আনার নিয়ম

এরপর থেকে Research রিচার্জ এর মাধ্যমেনতুন নতুন জিনিস ইন্টারনেট যুক্ত করা হয় এবং ধীরে ধীরে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা বাড়তে থাকে। এরপর তারা কিছুটা সফল হয়ে অক্টোবর ২৯ তারিখ ১৯৬৯ সালে চারটি কম্পিউটার একসাথে কানেকশন করার পর লগইন লিখে একটি থেকে অন্যটিতে পাঠিয়ে থাকেন এবং তারা সফল হন।

ইন্টারনেট কি কি কাজে লাগে

বর্তমানে ইন্টারনেট এর যুগে প্রতিটি মানুষের কাজকে সহজ করে দিয়েছে তাই ইন্টারনেট কি কাজে লাগে এর কোন হিসাব নেই তাই যেসব জিনিসগুলো ইন্টারনেট সব থেকে বেশি ব্যবহৃত হয় সে জিনিসগুলো সম্পর্কে আলোচনা করা হলোঃ

আরো পড়ুনঃ   ঘরে মোবাইল নেটওয়ার্ক সমস্যার সমাধান

  • অনলাইন থেকে পণ্য কিনতে।
  • কমিউনিকেশন এর জন্য।
  • শিক্ষা দীক্ষার জন্য
  • ইনফরমেশন খুঁজে বার করতে।
  • মনোরঞ্জনের জন্য।

ইন্টারনেট কিভাবে তৈরি করা হয়।ইন্টারনেটের ইতিহাস

ইন্টারনেট চালানোর জন্য বিশেষ ধরনের অপটিক্যাল ফাইবার ব্যবহার করা হয় যেটি এক ধরনের কেবল এর সাথে যুক্ত তার। তাই এ ধরনের তার বা অপটিক্যাল ফাইবার ক্যাবল সমুদ্রের নিচ দিয়ে এক দেশ থেকে আরেক দেশে লক্ষ লক্ষ কিলোমিটার এলাকায় জুড়ে এ তার বিশেষ  বিছিয়ে দেওয়া হয়। যার মাধ্যমে গোটা পৃথিবী ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারে।

আরো পড়ুনঃ ক্যামেরার লেন্স কি?

ইন্টারনেট কেবল এর ওপর দিয়ে যাতে কোন জাহাজ না আসে এজন্য ২৪ ঘন্টা পাহারা দেওয়া হয়।এবং কোন সমস্যা দেখা দেয় তাহলে উন্নত প্রযুক্তির মাধ্যমে সেই জায়গায় গিয়ে পুনরায় সমস্যার সমাধান করা হয়।

ইন্টারনেট কিভাবে কাজ করে?

ইন্টারনেট তিনটি জিনিসের ভিত্তিতে কাজ করে যথাঃ

  • সার্ভার 
  • ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার 
  • ওয়েব ব্রাউজার

সর্বশেষ কথাঃ ইন্টারনেট আবিষ্কার করেন কে?

বন্ধুরা ইন্টারনেট আমার অনেকই ব্যবহার করে থাকি তবে এর আবিষ্কারক কে বা কিভাবে কাজ করে থাকে সে সব কথা জানিনা তবে আজকের আটিকেলটি পড়ে তেমনি কিছু ধারণা দেওয়ার চেষ্টা করেছি মাত্র। আশা করি আপনারা সবাই ইন্টারনেট এর জনক কে, ইন্টারনেট সংযোগ স্থাপন করা হয় কবে এবং ইন্টারনেটের মাধ্যমে আমরা য়ে সব সেবা প্রদান করে থাকে সকল ধরনের টিপস সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য। আরো তথ্য সংগ্রহ করতে চাইলে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন এবং সবাইকে জানার সুযোগ করে দিন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0মন্তব্যসমূহ

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন (0)

#buttons=(Ok, Go it!) #days=(20)

Our website uses cookies to enhance your experience. Check Now
Ok, Go it!